অনলাইনে দ্রুত অর্থোপার্জনের ৪0 সহজ উপায়

বন্ধুরা কেমন আছেন আশা করি সবায় ভালো আছেন। আজ আমি যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবো তা হলো আপনি কিভাবে অনলাইন থেকে দ্রুত অর্থোপার্জনের করতে পারেন। তার বিষয়ে আলোচনা করবো। আমরা অনেকে অনলাইনে কাজ চায়, কিন্তু কি কাজ করবো সে বিষয়ে জানি না। তাদের সুবিধার জন্য আমি আমার লেখায় ৪০ উপায়ে সর্ম্পকে  বলেছি। আরো জানুন:- তাহলে … Read more

অনলাইনে বেশিরভাগ মানুষ আয়ের দিক দিয়ে অসফল কেন?

 কেমন আছেন বন্ধুরা ভাল নিশ্চয়ই আজ আমি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো তা হলো অনলাইনে কেন বেশিরভাগ মানুষ  আয়ের দিক দিয়ে অসফল । বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা যাক। বর্তমানে অনলাইনে আয় ব্যাপারটা বেশ জনপ্রিয়  আমাদের কাছে বিশেষ করে তরুন সমাজের কাছে বিষয়টি নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই । আপনারা যারা যারা এই মাত্র পোষ্টি পড়ছেন … Read more

অনলাইন মার্কেটপ্লেসের সুবিধা ও অসুবিধা সমূহ

Online Marketplace: Advantages and Disadvantages অনলাইন অর্থ উপার্জন সম্পর্কে একটি আলোচনা ই-কমার্স এবং ফ্রিল্যান্সিংয়ের জন্য অনলাইন মার্কেটপ্লেসের বিষয়ে আরও গভীরভাবে কথোপকথনের জন্য আমন্ত্রণ জানায়। একটি অনলাইন মার্কেট প্লেস একটি ধরনের ই-কমার্স সাইট যেখানে তৃতীয় পক্ষ পণ্য এবং পরিষেবা সরবরাহ করে। বাজার অপারেটর ব্যাকএন্ড এবং ফ্রন্টেন্ড সিস্টেম, UI / UX, প্রক্রিয়াকরণ লেনদেন এবং আরো জন্য দায়ী। … Read more

নিশ সাইট শুরু করতে হলে, ৭টি বিষয় মনে রাখবেন ।

যারা একেবারে শুরু থেকে একটি নিশ সাইট শুরু করতে যাচ্ছেন তাদের জন্য আমার এই লেখাটি। আমরা যারা নিশ সাইট নিয়ে আগে কাজ করি নি, এবং একেবারে নতুন ভাবে শুরু করতে যাচ্ছি তারা অনেক কিছুই হিসাবে গোলমাল পাকিয়ে ফেলি। কেউ হয়তো জিজ্ঞাসা করতে পারেন, আমি কিভাবে জানি। কারণ, আমিও প্রথম সাইট শুরু করতে গিয়ে অনেক কিছুই … Read more

একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার কিছু জরুরী ও কার্যকরী টিপস সর্ম্পকে আলোচনা ।(Here are some tips to help you become a successful entrepreneur. )

আপনাকে  উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচয় দিতে কার না ভালো লাগে! বর্তমান সময়ের সবচেয়ে চাহিদার কিংবা আকর্ষণের একটি কাজ হচ্ছে নিজেকে উদ্যোক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা। আপনি যাই করেন না কেনব্যবসা কিংবা চাকরি যেকোনো জায়গাতেই মানুষ চায় নিজেকে কিছুটা আলাদাভাবে উপস্থাপন করতে।তাই তো বর্তমান সময়ের তরুণ তরুণীদের আকর্ষণের একটি জায়গা হচ্ছে নিজেকে উদ্যোক্তার আসনে দেখা। যদি আপনি উদ্যোক্তা … Read more

একটি জামা-প্যান্ট এর টাকা বাঁচিয়ে করা ওয়েবসাইট হতে পারে আপনার আগামী ঈদের অনেকগুলি জামা-প্যান্ট কেনার হাতিয়ার।

আর্টিকেলেটির টাইটেল দেখে নিশ্চয় বুঝতে পারছেন এখানে কি বুঝানো হয়েছে! এখানে মূলত বুঝানো হয়েছে সামনে আসছে আমাদের পবিত্র উৎসব আর এই উৎসব কে সামনে রেখে আমরা সবাই কম বেশি ধনী থেকে গরিব মার্কেটিং করে থাকি! আমাদের যাদের অবস্থা ভালো তারা কম বেশি প্রত্যেকে ১০-১৫ হাজার টাকার শপিং করে থাকি! এখানে জামা- প্যান্ট কে উল্লেখকরার একটিই … Read more

র্ধৈয্য মানুষকে বদলে দেয়।(Patience changes people )

‘‘র্ধৈয্যশক্তি”  আমরা ছোট থেকে একটি শব্দ শুনেতে শুনেতে বড় হয়েছি । আবার বড় হয়েও প্রতি নিয়ত শুনছি এবং  আশা করি জীবনের শেষ দিন  পযর্ন্ত শুনবো । আমার মনে হয় আপনারা আমার কথার সাথে একমত  হবেন। কারন এ সম্পদ টি ছাড়া জীবনে কিছুটি করা সম্ভব হবে  না । আবার অধিক মাএায় থাকলে  সমস্যা  হতে পারে । প্রতিটি ভাল বা মন্দ কাজের জন্য এটি খুবিই দরকারি ।  জানতে চান সেটি  কি তা হলো আমাদের                                                                    ‘‘র্ধৈয্যশক্তি”  এর উপর বড় গুন আর আছে বলে আমার মনে হয় না । কারন যারাগরিব তারা বেশি করে বলতে পারে  যে র্ধৈয্যশক্তি কি জিনিস ।  হ্যাঁ বন্ধুরা জীবনের প্রতিটি মুহুতে আমাদেরকে র্ধৈয্যশক্তির পরীক্ষা দিতে হয়  ।‘‘র্ধৈয্য ধরে থাকলে ,তার ফল নাকি মিস্টি হয়” সকলে  এ কথাটি বলে আমিও আপনাদেরকে বলছি  কারন আপনি যে কোন জিনিস র্ধৈয্য ধরে করলে আশা করি ফলটি ভাল পাবেন ।  যদি খারাপ ও হয়,  আমরা আবার অপেক্ষা করে থাকি । এবং তার শেষ দেখে তারপর কি ? এগিয়ে যায় কারন ছাড়লে হবে না   এগিয়ে যেতে হবে । জীবনে কঠিন সময় আসে, আমাদেরকে ধ্বংস করতে নয়, বরং আসে আমাদের ভিতর লুকনো অমিত  শক্তি  ওসম্ভাবনাকে অনুধাবন করাতে । বাধাসমুহ কে দেখাতে হবে আমরা ও কম কঠিন না। শক্তহাতে  আমরা সকল কিছু মোকবেলা  করতে পারি । ঠিক আমাদের অনলাইন জগৎ টাও অনেক কঠিন, আপনি যতোটা সহজ মনে করছেন ততোটা না ।   আপনি এটাকে যদি পেশা হিসাবে নিতে চান এবং এখান থেকে আয় করতে চান তবে একটু তো                                              ‘‘র্ধৈয্যশক্তি”থাকতে হবে ।                          লোকের কথায় কি যায় আসে , আপনি যদি  ভাল থাকেন ।   তাহলে বন্ধুরা আগে অনলাইন সর্ম্পকে জানুন , তারপর আস্তে আস্তে এগিয়ে চলুন র্ধৈয্য হারালে  হবে না । কারন র্ধৈয্য হারালে কিছুই  পাবেন না । আমিই শিমন  100% গ্যারান্টি দিয়ে বলছি আপনি র্ধৈয্য ধরে কাজ করুন,  তার ফল আপনি পাবেন ।   আমার সঙ্গে  থাকুন আর  সেই মোতাবেক কাজ করুন  ভাল হবে আশা রাখি । 

টাকা ছাড়াই আয় করুন টাকা । তা আবার ঘরে বসে।(How to Make Money Without Investment at home.)

অনলাইন অর্থ আয় করা । বিশ্বের যে কোন জায়গায় থেকে সম্ভব। সুতরাং আপনি গাছতলায় থাকেন আর বট তলায় থাকেন । দেশে  থাকেন বা বিদেশে থাকেন। যে কোন জায়গা থেকে আপনি আয় করতে পারেন । সুতরাং আপনি কোন দ্বিধা ছাড়াই অর্থ উপার্জন  পদ্ধতি শিখতে শুরু করতে পারেন।  এখন আমি আপনাকে  টাকা আয় করার উপায় জানাচ্ছি। এই দেশে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার জন্য আপনাকে অবশ্যই সাবধানে  সবকিছু পড়তে হবে। এবং বুঝে সিদ্ধন্ত নিতে হবে ।  আরো পড়ুন: গুগল থেকে আয় করার সেরা ৩টি উপায়। গুগলের প্রথম পেজে ওয়েবসাইট আনতে যা করবেন। Google Ad Sense খুলবেন কিভাবে তার সহজ ও সুন্দর পথ অনলাইনে ফ্রিল্যান্সিং করে :  ফ্রিল্যান্সিং ইতিমধ্যে বাংলাদেশে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এটা বাড়িতে থেকে অর্থ উপার্জন করার জন্য মহান সম্ভাবনা আছে। বাংলাদেশে  অনেকেই ফ্রিল্যান্সিং করে বিপুল অর্থ উপার্জন করছেন।বিশ্বাস হচ্ছে নানা হবার কিছু নেই এটায় সত্য কথা । আপনারা  খুশি হবেন যে  বাংলাদেশ বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিংয়ের দ্বিতীয়অবস্থানে রয়েছে।  সুতরাং আপনি এটিশুরু করতে পারেন।একটি ফ্রিল্যান্সার হিসাবে কাজ করতেচাইলে তার অনেক ক্ষেত্র আছে। আপনি লেখালেখি করে , গ্রাফিক্স ডিজাইনিং, ডাটা এন্ট্রি, ভার্চুয়াল সহায়তা ইত্যাদির মতো  কাজ করে আপনি টাকাআয় করতে পারেন। আপনার  যে বিষয়টি  বেশি আগ্রহ সেটিতে কাজ শুরু করতে পারেন ।   ব্লগিং পোষ্ট তৈরি করা :  ব্লগিং করে একটি বিশাল অর্থ উপার্জন সুযোগ আছে। আপনি ব্লগিং থেকে হাজার হাজার টাকা আয় করতেপারেন তবে তা যদি  সঠিকভাবে করতে পারেন । এমন অনেক ব্লগার আছেন যারা প্রতি মাসে অনেক টাকা আয় করে যাচ্ছে । এবং ভাল আছে । আপনার ব্লগ থেকে অর্থ উপার্জন করতে কয়েক গুলো উপায় রয়েছে। আমি এখানে একটি ব্লগ থেকে কি উপায়ে আয় করতে  পারেন তার সর্ম্পকে বলছি ।  এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং :  এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আপনার ব্লগ দিয়ে অর্থ উপার্জন করার সেরা উপায়। যদিও আপনি নিজের ব্লগ ছাড়া অধিভুক্ত মার্কেটিংয়ের  জন্য যেতে পারেন, তবে একটি ব্লগ থাকা আপনাকে আপনার অনুমোদিত বিক্রির উন্নতি করতে সহায়তা করবে।এফিলিয়েট  মার্কেটিংয়ের বেশ কয়েকটি ইতিবাচক দিক রয়েছে,  তবে এই ধরনের অর্থ উপার্জন পদ্ধতির ডাউনসাইডগুলির মধ্যে একটি হল এটি অনুমোদিত পণ্য বিক্রি করে অর্থ উপার্জন শুরু করার  জন্য দীর্ঘ সময় নেয়। কিন্তু আপনি যদি উপযুক্তভাবে মার্কেটিং করতে পারেন, তবে আপনি অনেক দ্রুত অর্থ আয় করতে পারবেন  … Read more

চিন্তা আপনার ক্যারিয়ার ধ্বংস করতে পারে(Thoughts can ruin your career.)

  আপনাদেরকে শুরুতে যে কথাটি বলতে চাই, তাহলো “চিন্তা” হ্যাঁ বন্ধুরা “চিন্তা” আমাদেরকে কখনো ভালপথ দেথায় আবার কখনো এমন একটি পথ দেখায় যা আপনি কখনো কল্পনা করেন নি । খুবিই খারাপ পথ যা আপনাকে ধংস করেফেলে দেয়। আমি ও অনেক চিন্তা করতাম । ভাবতাম আমি একদিন অনেক টাকার মালিক হবো ,বাড়ি করবো ,গাড়িকিনবো ইত্যাদি কিন্তু তা শুধু চিন্তার মধ্যে সিমাবদ্ধ থাকলে  হবে কি কিছু , না তা সম্ভব নয় । তাই  বলি অনেক কিছুনা ভেবে একটা সিদ্ধন্ত নিন আর এগি্যে জান আপনার চিন্তা মোতাবেক  দেখবেন আপনি আপনারফল পাবেন। ভুল হবে আবার দাড়ানোর চেস্টা করবেন । আমাদের প্রতিদিনের জীবনে কিছু চিন্তা যাআপনাকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যেতে পারি ,আজ আমি সে সর্ম্পকে আপনাদেকে বলবো ।  সে গুলো হলো :  আরো জানুন: নেমচিপ কোম্পানির সেরা সব হোস্টিং প্যাকের দাম সর্ম্পকে আলোচনা ১. আপনার বিশ্বাস অনেক সময় সত্য না হতে ও পারে ।  ২.অন্যদের সাথে তুলনা করা আপনাকে অসুখী করবে  ৩.আপনি যাকে খুব বেশি বিশ্বাস করবেন ,সেআপনার শত্রু হতে পারে ।  ৪.যা আছে তার চেয়ে অধিক আশা করলে সমস্যাহতে পারে ।  ৫. প্রত্যাশা করলে যখন প্রত্যাশা পূরণ না হয়, আপনি দু:খিত হন।  ৬.অন্যেনে মতামতে যদি আপনি কাউকে অনুসরণ করেন, আপনি নিজের পরিচয় হারাতে পারেন।  ৭. একই সময় অনেক কাজ করলে সমস্যা হতে ।  আরো জানুন: ডোমেইন কিনবেন যেভাবে তার গাইড লাইন ৮. আপনার কিছু নায় বলে অসুখি হবেন না।কেও কখনো অর্থ নিয়ে পৃথিবী আসে না ।  এগুলো করলে আপনি দাড়াতে পারবেন না । তাই আমি বলতে পারি…  ৯.  নিজেকে ব্যালেন্স রাখুন এবং একটি সুখী জীবন লিড করতে পারবেন ।  ১০. নিজেকে বিশ্বাস করুন ।  ১১. অন্যের কথা শুনে ,নিজের জন্য যেটিভাল সেটি বেছে নিন ।  ১২. পরিশ্রমি চিন্তা করুন, যা আপনি কাজেলাগালে ভাল ফল পাবেন ।  ১৩. অযথা বাজে চিন্তা করবেন না ।যা আপনারশরীরের জন্য খারাপ দিক হতে পারে ।  আরো জানুন: Best 22 Domain and Hosting Affiliates Site. সকলের সাথে মিলেমিশে চলুন । কিন্তু দয়াকরে কাওকে বিশ্বাস করবেন না ।কারন আপনার জীবন , একান্ত  আপনার সেখানে কারো ও অধিকার নায় । নিজের একান্ত আপন জন ও না । শেষ কথা আমাকে অনুসরণ করুন নতুন পথে এগিয়ে চলুন যেটি আপনার জন্য  … Read more

অনলাইনে আয়ের বতর্মান অবস্থা জেনে নিন।(Find out the current status of online income.)

অনলাইনে আয় করা আগের তুলনায় এখন প্রায় সহজ হয়ে গিয়েছে । এখন অনলাইনে আয় করা স্বপ্নের মত কোন  বিষয় নয় । আপনি চাইলে এখন ঘরে বসে আয় করতে পারেন । শুধু কিভাবে আয় করতে হয় তার বিষয় সম্পর্কে  ধারণা থাকলে আপনি আয় করতে পারেন অনেক টাকা ।  তার জন্য  আপনার  যে জিনিস প্রথম  প্রয়োজন তা  হল একটি কম্পিউটার ও একটি অনলাইন সংযোগ ।  এটা থাকলে আপনি ঘরে বসে কাজ করতে পারেন । শুধু মাএ কাজ করলেই হবে না । আপনার ধারনা থাকতে  হবে কিভাবে এ টাকা উওোলন করতে হবে । আগে এ সমস্যা টি প্রচুর ছিল ।অনেক অসাধু ব্যাবসায়ী কাজ  করানোর পর নামে মাএ অল্প টাকা দিত আর হাতিয়ে নিত অনেক টাকার কাজ ।যার ফলে অনেক মানুষ  এখন অনলাইনে কাজ কে তেমন্ একটা বিশ্বাস করতে চাই না । বর্তমানে তা অনেক টা বদলে গেছে । এখন বতর্মান সরকার অনলাইনে কাজ কে গুরুত্বপূর্ণ একটি আয়ের মাধ্যম হিসেবে বিবেচনা করে থাকে ।  আরো জানুন: একটি ওয়েবসাইট থেকে আয় করুন একাধিক উপায়ে । বতর্মানে অনলাইনে আয় করা বিষয়টি সারা বিশ্বে একটি আলোচিত বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে । পাশাপাশি তাল মিলিয়ে  এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের বাংলাদেশী মানুষ।এখন শহরের মানুষের পাশাপাশি গ্রামের মানুষরা ও এগিয়ে যাচ্ছে  অনলাইনে  আয় করার পথে ।  আমাদের দেশে জনসংখ্যা  অনেক  কিন্তু সে  অনুযায়ী কাজের ব্যাবস্থা অল্প তাই আমাদের দেশের মানুষকে সরকারি ভাবে প্রশিক্ষনের মাধ্যমে আয়ের পথ তৈরি করে দিচ্ছে বর্তমান সরকার । এভাবে অনেকটা বেকার  সমস্যা দুর হবে বলে আমরা আশা রাখি । আপনি চাইলে অনলাইনে এ সকল কাজ করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারেন ।  আরো জানুন: আমি খুশি নিজের প্রথম ওয়েবসাইট টি হাতে পেয়ে । তাদের জন্য আমার এই ওয়েবসাইট? ব্লগ বা ওয়েবসাইটে … Read more

আপনি চাকুরী করছেন কিন্তু সন্তুষ্ট নন? তাহলে আমি আপনাকে সাহায্য করতে পারি।(Are you employed but not satisfied? Then I can help you.)

আপনি চাকুরী করছেন ।এটা ভাল কথা কারন সকলে ভাল একটা চাকুরী আশা করে । এবং আশা করে যেপরিবার পরিজন নিয়ে ভাল  থাকবে। কিন্তু এমন কোন চাকুরী নেয় যেখানে কোন কষ্ট নেয়। বা পরিশ্র্রম নায়।  আমাদের দেশে চাকুরী মানে চাকর সে যেই চাকুরী হোক না কেন । আপনি গাধার  মত পরিশ্রম করবেন ফলে কি পাবেন শুধু হতাসা  আর কস্ট ।  সত্য ঘটনা :    আমার বন্ধু রনি সে বেকার ছিল আমার মত । অনেক জায়গায় চাকুরী খুজে না পেয়ে প্র্রায় হতাস হয়ে গিয়ে ছিলো । হঠাৎ একদিন একটা  প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকুরী পেল । রনি ও আমরা সকল বন্ধু খুব খুশি হলাম ।তার পরিবার ও খুব হলো । সে চাকুরীর সুবাদে পরিবার  ছেড়ে ঢাকায় চলে গেল । এবংসেখানে চাকুরী করতে লাগলো ।  প্রথম অবস্থায় ও আমাদের সাথে যোগাযোগ করতো ।আমরা ও মাঝে মাঝে যোগাযোগ করতাম কিন্তু হঠাৎ যোগাযোগ বন্ধ  হয়ে গেল ।  আমরা ও তেমন গুরুত্ব দিলাম না পরে আমরা ও একে একে যে যার কাজে চলে গেলাম আমরা তিন বন্ধু মিলে অনলাইনে কাজ করতাম । ভালই আয় হতো আমাদের ,আমরা অনেক বার চেস্টা করেছি রনিকে অনলাইনে কাজ করানোর জন্য কিন্তু সে এসব কাজের প্রতি তার  তেমন বিশ্বাস ছিলো না ।  আমরা অনলাইনে কাজ করে এক একজন ভাল অবস্থানে চলে গিয়েছি ।কিন্তু রনির কথা বলতে পারবো না ।হঠাৎ একদিন রনির সঙ্গে দেখা  হলোতাকে বলেছিলাম চাকুরী কেমন হচ্ছে সে আমাকে যা বললো এটা আশা করি সকল চাকুরী জীবিদের জানা । সারা মাস গাধার খাটুনি  খেটে মাস শেষে সে যে বেতন পায় তাতে তার সংসার চলে না । তারপরেআছে অফিসের অনেক কাজের চাপ । আর কাজ ঠিক মত না হলে শুনতে হয় স্যারের বকুনী । তার মধ্যেসময় পাওয়া যায় না  পরিবারকে নিয়ে কোথাও বেড়াতে যাওয়ার এছাড়া ও আরো অনেক সমস্যার কথা বললো রনি আমাকে ।  এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ কাজ :  তখন আমি তাকে বুদ্ধি দিলাম যে কাজের পাশা পাশি অনলাইনে এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর কাজ করার জন্য । এখানে কাজ করে যেমন  মনে শান্তি পাওয়া যায় । তেমনি সময পাওয়া যায় প্রচুর পনিমানে ।এ সময়ে পরিবার ও  বন্ধুদের কে নিয়ে যেখানে খুশি বেড়াতে যাওয়া  যাবে ।এখনে তেমন কোন পরিশ্রম নায় । ‍তবে একটি নিদিষ্ট সময় পর আয় করা যায়  প্রচুর টাকা ।  রনি আমার কথাটি শুনলো এবং সে আমাদের সঙ্গে এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর কাজ করছে তার কাজের পাশা পাশি । টাকা আয় হলে সে  এই লাইনকে পেশা হিসাবে বেছে নেবে ।  তখন সে চাকুরী ছেড়ে দেবে ।  কিছু কথা :   এই রনির মত অনেক মানুষ আছে যারা তাদের কাজের জায়গায় সন্তুষ্ট না । তাদের জন্য আমার ছোট একটা কথা বন্ধু চাকুরী ছাড়তে  বলছি না । আপনার চাকুরীর পাশা পাশি এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কাজ টি একটু করে দেখুন আপনার ভাল লাগবে অবশ্যই । আরো ভাল  লাগবে যখন আপনি এখান থেকে আয় করতে শুরু করবেন । আপনার ধৈয্য ও পরিশ্রম আপনাকে এনে দিতে পারে শান্তি ও অজস্র সময় ।  শেষের কথা :   মনে শান্তি, অজস্র সময়, নিজে নিজের মালিক হওয়ার ইচ্ছা যদি আপনার থাকে । তবে কোন চিন্তা না করে আজ থেকে এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং  এর কাজ শুরু করে দিন । যতো দেরি করবেন ,ভেবে রাখুন ততো সময় পার হয়ে যাবে আপনার জীবন থেকে যা আর চাইলে ও ফেরাতে  পারবেন না ।  আজ এখানে শেষ করি সামনে কথা হবে অন্য কোন বিষয় নিয়ে যেটা আপনার আমার সকলের জন্য প্রয়োজন সেই সব বিষয় নিয়ে।  ভাল থাকবেন 

Earn Unlimited Passive Income From Online (Review-2021) অনলাইন থেকে আনলিমিটেড প্যাসিভ ইনকাম আয় করুন।

কাজে জায়গায় উপষ্থিত না থেকে যে টাকা আয় করা যায় ।তাকে মূলত  প্যাসিভ ইনকাম  বলা হয় । এটা আমার কাছে টাকা আয় করার  সেরা পথ বলে মনে হয় । আপনার দৃষ্টিতে কি মনে হয় ।আপনি অনেক আগে কাজ সম্পূর্ণ করে রেখেছেন এখন সেখান আয় করছেন আর  খরচ করছেন নিজের ইচ্ছে মত। অবশ্য প্যাসিভ ইনকাম  করতে হলে প্রথমে আপনাকে একটি ওয়েব সাইট ক্রয় করতে হবে। তারপর কাজ  করতে হবে। প্রথম  অবষ্থায় একটু পরিশ্রম করলেই হবে । যার ফল আপনি ভাল পাবেন নিজেকে কিভাবে প্যাসিভ ইনকামের পথে আনতে পারেন:  ধরুন আপনি বাড়িতে একটি লিচু গাছ কিনে এনেছেন। তারপর তা একটি নিদিষ্ট জায়গায় খুবিই যন্ত করে লাগিয়েছেন ।প্রথম অবষ্থায়  আপনি গাছে ঠিক মত পানি দিচ্ছেন ,ঠিক মত সার দিচ্ছেন । এভাবে বিভিন্ন ভাবে আপনি গাছের যত্ন নিচ্ছেন ।দুই বছর পর দেখলেন  আপনার গাছে ফল দিয়েছে। এবং আপনি ও আপনার পরিবার ফল গুলো খেলো।ফলটি খেতে খুবিই মজার ছিল । কারন কি জানেন কারন আপনি ফলটি নিজের হাতে লাগিয়েছেন ।এরপর থেকে সেই লিচু গাছ থেকে প্রতি বছর ফল দিতে শুরু করলো । আর আপনি তখন থেকে কোন ব্যায় না করে শুধু আয় করতে থাকলেন । ফল খাচ্ছেন ও অন্যদের কাছে বিক্রি ও করছেন । বিষয়টি  ভাল লাগছে শুনতে হ্যাঁ এটায় প্যাসিভ ইনকাম । আপনি ব্যায় করবেন একবার আর তার ফল পাবান বার মাস এটা যতো আয় হোক  না কেন । এখানে লিচু গাছ টি হলো প্যাসিভ ইনকাম আর আপনি হলেন তার মালিক ।  লিচু ফল দিচ্ছে আপনি সেটাকি করছেন  নিজের জন্য রাখছেন এবং অন্যের কাছে বিক্রি করে টাকা আয় করছেন ।এখানে ২য় বার  আপনাকে তেমন পরিশ্রম করতে হচ্ছে না । আপনি বসে থেকে আয় করতে পারছেন ।অর্থাৎ আপনি ফল দানের জায়গায় না থেকে  প্রতি নিয়ত সেখান থেকে আয় করছেন এটায় প্যাসিভ ইনকাম । তাহলে আপনিকি বলবেন? আপনার কি এ প্যাসিভ ইনকাম ইনকামের আওতায় উচিত কিনা ? এতো সহজে আয় আর কোন  কাজে পাওয়া যাবে না।  প্যাসিভ ইনকাম সেরা :  কর্মক্ষেত্রে উপস্থিত না থেকে আয় করা যায় প্যাসিভ ইনকামের মাধ্যমে।  প্যাসিভ ইনকামের প্রতিষ্ঠান গুলো থেকে সারাজীবন উপার্জন  হতে থাকবে। মাঝে মাঝে একটু খোঁজ খবর, দেখাশুনা করলেই চলবে।এখানে আপনার সময় বাজবে এখানে আপনি যেখানে ‍খুশি, যখন  খুশি বেড়াতে যেতে পারবেন ।  নিজেই মালিক হবেন কেও আপনাকে কিছু বলবে না ।এটায় হলো প্যাসিভ ইনকাম এর মতো সুখের কাজ আধুনিক বিশ্বে আর দ্বিতীয়টি   হতে পারে না । তাই আমার দৃষ্টিতে প্যাসিভ ইনকামের কাজটি কে সেরা মনে করি ।  যে কাজ গুলো হতে প্যাসিভ ইনকাম করা যায়:  ১. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে  ২. ওয়েবসাইট বিক্রি করে  ৩.  ডিজিটাল পণ্য বিক্রয় করে  ৪. ই-কমার্স ওয়েবসাইট খুলে  ৫. পে পার ক্লিক অ্যাডসেন্স করে  ৬. ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দিয়ে  ৭. কোর্স সেল করে  ৯. ছবি বিক্রি করে  ১০.নিজের লেখা বই বিক্রি করে  আপনি পেতে পারেন প্যাসিভ ইনকাম । সুতরাং বলা যায় যে এখানে কাজ করে আপনি যেমন আনন্দ পাবেন । তেমনি পাবান মনে প্রশান্তি। নিজেকে নিজের মত করে গুছিয়ে নিতে পারবেন । পারবেন নিজের ও পরিবারের ভবিষ্যৎ করতে । তাহলে আর চিন্তা না করে আসুন কাজ  করি আর আয় করি প্যাসিভ ইনকাক।  যা একবার শুরু করলে শেষ হবে না । চলতে থাকবে সারা জীবন। ধন্যবাদ ভাল থাকবেন, আবার  কথা হবে অন্য কোন লেখায় । ততো ক্ষনে সঙ্গে থাকবেন ।