5 Best Online Small Businesses. (Monthly Income $500 To $1000)

১) ইউনিক পণ্য বিক্রয় (Unik Product Sell)

আয়ের মাধ্যমঃ সোশ্যাল মিডিয়া পণ্যের এড প্রকাশের মাধ্যমে আয়।

ইনভেস্টমেন্টঃ পণ্য ক্রয় এবং সোশ্যাল মিডিয়া এড প্রকাশের জন্য।

ফেসবুক বা অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়া যে সব পণ্য বিক্রয় করা হয়, তা সাধারনত আসে পাশে পাওয়া যায় না। এই জন্য সেই সকল পণ্যের উপর সকলের এক ধরনের আগ্রহ দেখা যায় এবং অনলাইনে বিক্রয় ভালো হয়।

আপনি অনলাইনে পণ্য বিক্রয় করতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে ইউনিক পণ্য নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে। কারন ইউনিক পণ্যের বিক্রয় ভালো হয় এবং ইনভেস্টমেন্ট করার পর ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা কম থাকে। আপনার এলাকায় কোন ভিন্ন ধরনের পন্য থাকলে তা আপনি অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রয় করতে পারবেন। তবে অনলাইনে কোন পন্য বিক্রয় করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই ডিজিটাল এ্যাড দিতে হবে।

২) ওয়েব সাইট বিক্রি (Selling Websites)

আয়ের মাধ্যমঃ ওয়েব সাইট।

ইনভেস্টমেন্টঃ ওয়েব সাইট তৈরি এবং বিক্রি

অনলাইনে ভাল উপার্জন করার জন্য এই উপায়টি তাদের জন্য, যাদের ওয়েব ডিজাইনের উপর অনেক দক্ষতা রয়েছে। অর্থাৎ যারা ভাল ওয়েব ডিজাইন করতে পারেন, ওরা ওয়েবসাইট অথবা ওয়ার্ডপ্রেস থিম তৈরি করে ভাল মুল্যে বিক্রয় করতে পারেন।

অনলাইনে ওয়েবসাইট বা ওয়ার্ডপ্রেস থিম বিক্রয় করার জন্য অনেক পদ্ধতি রয়েছে। যেমন, ওয়েবসাইট বিক্রয় করা হয় এমন জনপ্রিয় সাইট আছে যেখানে আপনি আপনার ওয়েবসাইট বা থিম বিক্রয় করতে পারেন। অথবা নিজের বানানো ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ও বিক্রয় করতে পারেন। এছাড়াও মার্কেটপ্লেস গুলিতেও ওয়েব ডিজাইনের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। আপনি চাইলে এ কাজটি করে ভালো ডলার আয় করতে পারেন।

৩) অনলাইন বিক্রি (Online Seller)

আয়ের মাধ্যমঃ অনলাইন বিক্রি

ইনভেস্টমেন্টঃ বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে অনলাইনে পণ্য বিক্রি।

অনলাইনে আপনি মোবাইল, কম্পিউটার, বই, ভিডিও গেইম, পোষাক, কসমেটিক্স আইটেম, সফটওয়্যার, বেবি আইটেম অথবা মানুষের প্রয়োজনীয় যে কোন প্রোডাক্ট বিক্রয় করতে পারেন। অনলাইনে প্রোডাক্ট বিক্রয় করার জন্য আপনি একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট নিজে বানাতে না পারলে ও অন্য কাউকে দিয়ে বানিয়ে আপনার প্রোডাক্ট গুলি সাজাতে পারেন।

অথবা, অনলাইনে প্রোডাক্ট বিক্রি করার জন্য বাংলাদেশে bikroy.com কিংবা এর মত বেশ কিছু ই-কমার্স সাইট আছে, এইসব সাইটে নিজের একটি প্রোফাইল বানিয়ে প্রোডাক্ট গুলো সাজাতে পারেন। কিছু নিয়ম এবং কন্ডিশন মেনে এখানে প্রোডাক্ট বিক্রয় করে একটি ভাল মানের উপার্জন করতে পারেন। এটা খুব সহজ উপায় আপনি চাইলে এটা করে আয় করতে পারেন।

৪) Dropshipping

আয়ের মাধ্যমঃ অনলাইন পণ্য বিক্রি

ইনভেস্টমেন্টঃ বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে অনলাইনে পণ্য বিক্রি।

Dropshipping কি? মনে করুন, আপনার গ্রামে বা আপনার আশেপাশে পরিচিত কিছু লোক ভাল মানের পোষাক তৈরী করে বিভিন্ন দোকানে প্রতি পিছ ৪০০ টাকায় বিক্রয় করে। কিন্তু আপনি দেখেছেন, একই পোষাক এমাজনে ৮০০ টাকায় বিক্রয় হচ্ছে। আপনি তাদের কাজ থেকে পোষাক কিনে তা বিক্রি করে আয় করতে পারেন।সারা বিশ্বে অনেক মানুষ amazon.com সহ বড় বড় ই-কমার্স সাইট গুলোর মাধ্যমে এই Drop shipping করে কোটি কোটি টাকা ইনকাম করছেন। আপনার যদি এরকম কোন সুযোগ থাকে, তাহলে আর দেরি কিসের! লক্ষ লক্ষ মানুষ সফল হয়েছে। আপনি ও চেষ্টা করুন। সফল হবেন ।

৫) ব্লগ করে আয় (Blogging)

আয়ের মাধ্যমঃ ব্লগ এর মাধ্যমে আয়।

Blogging হচ্ছে এমন একটি উপায় যার মাধ্যমে আপনি অনলাইন থেকে ভাল উপার্জন করতে পারেন। ব্লগিং মূলত এক প্রকার ওয়েবসাইট যা আপনি blogger ব্যবহার করে অথবা WordPress ব্যবহার করে ব্লগ বানাতে পারবেন।

 ব্লগ ওয়েবসাইট দুই ভাবে বানাতে পারেন, ব্যক্তিগত এবং সোস্যাল। ব্যক্তিগত ব্লগে শুধু আপনি আপনার জ্ঞ্যান বা আইডিয়া গুলো লিখে পাঠকদের কাছে তুলে ধরতে পারবেন। আর সোশ্যাল ব্লগের মাধ্যমে যে কোন ইউজার লগিন করে তাদের নিজস্ব জ্ঞ্যান বা আইডিয়া গুলো আপনার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রকাশ করতে পারবে। লেখা যত বেশি হবে, পাঠকের সংখ্যা তত বেশি বাড়বে এটাই স্বাভাবিক। সুতারাং পাঠকের সংখ্যা যত বেশি হবে আপনার ওয়েবসাইটের রেংকিং এবং ট্রাফিক বেশি হবে। ট্রাফিক যত বেশি হবে তত বেশি উপার্জন করতে পারবেন। ব্লগিং করা সহজ তবে, আপনাকে খানিকটা ধৈর্য ধরে কাজ করে যেতে হবে। সফলতা আসবে আশা রাখি।

 আশা করি লেখাটি ভালো লেগেছে, যদি ভালে লাগে আপনার বন্ধুদের কে শেয়ার করতে ভূলবেন না। আর আমার দেওয়া অনলাইনে এই 5টি উপায়ের যে কোন একটি করে আয় করুন প্রতি মাসে হাজার হাজার ডলার।আমি বিশ্বাস রাখি আপনি পারবেন।

Leave a Comment