ই-কমার্স কি ?ই-কমার্স সাইটের জন্য সেরা ডোমেইন ও হোস্টিং কিনবেন কিভাবে?

ই-কমার্স কি ?ই-কমার্স সাইটের জন্য সেরা ডোমেইন ও হোস্টিং কিনবেন কিভাবে?

আপনি যদি একজন নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে একটি ই-কমার্স সাইট প্রতিষ্ঠিত করতে চান, তাহলে প্রথমে

আপনার প্রয়োজন হবে একটি ভালো মানের ডোমেইন ও হোস্টিং। কিন্তু নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য বেশ

কিছু সমস্যা হয়ে দাড়ায় যখন তারা এসব বিষয়ে কোন জ্ঞান ও দক্ষতা না থাকলে। তাই আজকের

আলোচনায় আমরা “ই-কমার্স কি? এবং কিভাবে আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইটের জন্য সেরা হোস্টিং

কিনবেন ?” এ বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক আপনি যদি

ডোমেইন ও হোস্টিং সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের আগের পোস্ট গুলো পড়ে নিতে

পারেন। আশাকরি বিস্তারিত জানতে পারবেন।

ই-কমার্স বলতে কি বুঝ:

সহজ ভাষায় বলতে গেলে এক কথায় ই-কমার্স হচ্ছে অনলাইনে বেচাকেনার মাধ্যম। অর্থাৎ ই-কমার্স হচ্ছে

ইলেকট্রনিক মাধ্যমে বাণিজ্য করার পদ্ধতি। যেকোনো পণ্য বা সেবা বাণিজ্যের প্রাথমিক ধাপ হচ্ছে

বিক্রেতারকাছে থাকা পণ্য ক্রয় করা, ক্রেতা কর্তৃক বিনিময় মূল্য পরিশোধ করা এবং বিক্রেতার সঙ্গে

ক্রেতার সারসরি যোগাযোগ।

ই-কমার্স ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ডোমেইন কিনবেন যেভাবে:

ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানাতে গেলে আপনাকে প্রথমেম যে কাজটি করতে হবে তা হলো ওয়েব সাইটের

জন্য একটি ভালো নাম ঠিক করতে হবে। তারপর পছন্দ অনুযায়ী নামে ডোমেইন খালি আছে কি না তা

দেখে নিতে হবে। কারণ এই নামেই আপনার প্রতিষ্ঠান পরিচিতি পাবে।

ডোমেন ঠিক করার করনীয় কিছু কথা:

1.প্রথমত আপনার ব্যবসার পণ্য বা সেবার সঙ্গে মিল রেখে ডোমেইন নাম পছন্দ করতে হবে।

2.ডোমেইন নামটি Brandable রাখার চেষ্টা করতে হবে কারন এ নামে আপনার ব্যবসা পরিচিত

পাবে।

3.ডোমেইনের নামে কোন সিম্বল বা হাইপেন ব্যাবহার করবেন না।

4.ছোট ও সহজে মনে রাখা যায় এমন ডোমেইন নাম সিলেক্ট করতে হবে। এতে আপনার সাইটে যাঁরা

আসবেন তারা আপনার সাইটের নামটা সহজে মনে রাখতে পারবে।

আরো জানুন:

5.Namecheap কোম্পানিতে .com ডোমেইন ৮৫০ টাকা থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে রেজিস্ট্রেশন

করা যায় । মেয়াদ শেষে নবায়ন (রিনিউ) করার অনেক সুবিধা আছে এখানে।

6.রেজিস্ট্রেশন করার পর ডোমেইনের নিয়ন্ত্রণ (কন্ট্রোল প্যানেল) নিজের হাতে নেবেন।

7.কন্ট্রোল প্যানেল দিতে পারবে না এমন সেবাদাতা বা প্রোভাইডারের কাছ থেকে ডোমেইন কেনা যাবে

না। আপনি চাইলে  বিদেশি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ডোমেইন কিনতে

পারবেন। তবে সকল কিছু দেখে বুঝে তারপর কিনবেন।

ই-কমার্স ওয়েবসাইটের জন্য সেরা হোস্টিং প্লান কিনবেন যেভাবে:

ই-কমার্স সাইটের জন্য ডোমেইন কেনার পরেই যেটা বেশি প্রয়োজন হয়, সেটা হলো হোস্টিং। মূলত

আপনি যে সাইটটা তৈরি করবেন, সেটার যাবতীয় ডাটা, ফাইল ও দরকারি জিনিসপত্র সার্বক্ষণিক চালু

রাখার জন্য একটি স্পেস বা জায়গা প্রয়োজন। আর সেই নির্ধারিত স্পেস বা জায়গা কেই বলা হয়

ওয়েবসাইটের হোস্টিং। আপনি চাইলে যেকোনো বিদেশি প্রতিষ্ঠান Namecheap.com,

Godday.com  পাশাপাশি বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের Domain.com থেকেও হোস্টিং প্যাকেজ কিনতে

পারবেন। হোস্টিং বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে।

যেমন: শেয়ারড হোস্টিং, ভিপিএস (ভার্চ্যুয়াল প্রাইভেট সার্ভার) হোস্টিং, ক্লাউড হোস্টিং, রিসেলার

হোস্টিং,ডেডিকেটেড হোস্টিং ইত্যাদি। এখন এগুলো হোস্টিং সার্ভিসের মধ্যে আপনি কোনটা বেছে

নিবেন। সেটা হলোমেন বিষয়। সংক্ষেপে এ বিষয়ে আলোচনা করা হলো।

আরো জানুন:
ক্লাউড হোস্টিং:

যখন কোনো ওয়েবসাইট হোস্ট করা হয়, তখন তা একটি সার্ভারে সংর‌ক্ষিত থাকে। কিন্তু ক্লাউড

হোস্টিংয়েসাইটটি একটি সার্ভারের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না। অর্থাৎ প্রয়োজনে ভিন্ন ভিন্ন সার্ভারের

সমন্বয়ে ক্লাউডপ্রযুক্তির মাধ্যমে ব্যবহারকারীর কাছে পৌঁছাতে পারে। তাই একই সময়ে বেশি মানুষ

সাইটে গেলেও সার্ভারডাউন হয় না। তাই ই-কমার্স সাইটের জন্য প্রথম পছন্দ হওয়া উচিত ক্লাউড

হোস্টিং। কিনতে চাইলে ভিজিট

করুন: GoDaddy, Namecheap.com, Domain.com

ডেডিকেটেড হোস্টিং:

যখন একটা কম্পিউটার পুরটাই একটা সার্ভার হিসাবে ব্যবহার করা হয় তখন এটাকে বলে ডেডিকেটেড

সার্ভার। আর এই ডেডিকেটেড সার্ভার এর হোস্টিং কে আমরা বলি ডেডিকেটেড হোস্টিং । ডেডিকেটেড

সার্ভার অনেক ব্যয়বহুল। যাদের ওয়েবসাইট অনেক বড় এবং বেশি নিরাপত্তার প্রয়োজন হয় তাদের জন্য

এই হোস্টিং সার্ভিস টি ভালো। ই-কমার্স সাইটের জন্য ডেডিকেটেড হোস্টিংয়ের সুবিধা-অসুবিধা দুটোই

আছে। ডেডিকেটেড সার্ভারের মাসিক ভাড়া কমবেশি ছয় হাজার টাকা থেকে শুরু হয়ে থাকে। কিনতে

চাইলে ভিজিট

করুন: GoDaddy, Namecheap.com, Domain.com

আরো জানুন:
শেয়ারড হোস্টিং :

শেয়ারড হোস্টিং মানেই হচ্ছে এক পিসিতে একটা হার্ড ডিস্ক থাকবে সেই হার্ড ডিস্ক এর সব স্পেস শেয়ার

করা হয় অনেকে হোস্টিং ইউজারদের মধ্যে। এ ধরনের হোস্টিং ই-কমার্স সাইটের জন্য অনুপযোগী।

অধিক সংখ্যক ভিজিটর সাইটে এলেই সার্ভার ডাউন হয়ে যাওয়ার চান্স আছে। সাধারণত ১০০ থেকে

৩০০ টাকার মধ্যে (প্রতি মাসিক ভাড়া) আপনি এই হোস্টিং কিনে ব্যাবহার করতে পারবেন। কিনতে

চাইলে ভিজিট করুন:

GoDaddy, Namecheap.com, Domain.com

ভিপিএস হোস্টিং:

ভিপিএস এর ফুল ফর্ম হলো ভার্চ্যুয়াল প্রাইভেট সার্ভার। যখন একটা কম্পিউটারকে  বিশেষ কোন

Software বা অন্য কিছু দিয়ে ভাগ করে অনেক গুলো সার্ভার তৈরি করা হয় তখন প্রত্যেক ভাগকে এক

একটা ভিপিএস বা ভার্চ্যুয়াল প্রাইভেট সার্ভার বলে। ই-কমার্স সাইটের জন্য এটি ব্যাবহার করতে

পারবেন। কিনতে ভিজিট করুন: GoDaddy, Namecheap.com, Domain.com

আরো জানুন:
পরিশেষে,

ই-কমার্স বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে নতুন হলেও ভবিষ্যতের কথা ভেবে নতুন উদ্যোক্তারা ধীরে ধীরে

অনলাইন ই-কমার্স ব্যাবসার এর সাথে জড়িত হচ্ছেন। তাই আপনি যদি একজন নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে

একটি ই-কমার্স সাইট প্রতিষ্ঠিত করতে চান তাহলে উপরোক্ত আলোচনা আপনার জন্য সহায়ক হিসেবে

কাজ করবে বলে আমি মনে করি। লেখা গুলো পড়ে ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না ।

ভাল থাকবেন।।

simonpan

শিমন পান হলেন , এই ওয়েব সাইটের একজন প্রফেশনাল এফিলিয়েট মার্কেটার। এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক খুঁটিনাটি বিষয়বস্তূ নিয়ে আলোচনা করা এবং মাতৃভাষা বাংলাতেই কিভাবে একজন ব্যাক্তি জিরো থেকে শুরু করে সফলতার শীর্ষে অবস্থান করতে পারেন তা নিয়ে আলোচনা করাই এই ওয়েবসাইট এর মূল উদ্দেশ্য । তিনি অনলাইনে কাজ শুরু করেন ২০১৮ সালের জানুয়ারী মাসে । তার প্রথন সাইটটির নাম হল www.makemoneywithdada.com । এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক বিভিন্ন আপডেট পেতে নিয়মিত এ ওয়েবসাইট টি ভিসিট করুন। যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন :- simonpanbd@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *