ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা আয় করবেন ? এবং সেই টাকা কিভাবে উঠাবেন?

ইউ টিউব থেকে কিভাবে টাকা আয় করবেন ?

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও শেয়ারিং সাইট YouTube থেকেও আপনি আয় করতে পারবেন অনেক

বড় অংকের টাকা। অনলাইনে টাকা আয় করা যায় এরকম কথা শুনেন নি এই ধরণের লোক বর্তমানে

পাওয়া অনেকটা কষ্টকর হয়ে পড়েছে। আর এই ব্লগেতো পাওয়ার কথাই না। অনলাইনে আয়ের হাজার

হাজার পদ্ধতির মধ্যে একটি পদ্ধতি আছে যা অনেকেরই জানা নাই। আর তা হল- YouTube ভিডিও

এর মাধ্যমে আয়।


নিচে আমি কয়েকজন ব্যাক্তির নাম ও তাদের আয়ের পরিমান উল্লেখ করলাম-

1. Shane Dawson (431 million views and earn $315,000)


2. The Annoying Orange (349 mil views and earn $288,000)


3. Philip DeFranco (248 mil views and earn $181,000)


4. Ryan Higa (206 mil views and earn $151,000)


5. Fred (200 mil views and earn $146,000)


 কিভাবে আয় করবেন?

YouTube থেকে আয়ের অনেক উপায় রয়েছে। নিম্নে কয়েকটা পদ্ধতি আলোচনা করা হল-

১. সুন্দর একটা YouTube Channel Name তৈরী করুন:

প্রথমে YouTube এ গিয়ে একটা ফ্রি রেজিষ্ট্রেশন করুন। একাউন্ট তৈরী করার সময় যেকোন নাম না

দিয়ে এমন নাম দেন যার সার্চ বেশী, যে নাম যে কেউ মনে রাখতে পারবে।

২. ভিডিও তৈরী :

ভিডিও তৈরীর জন্য আসলে দুইটি পথ অবলম্বন করা যেতে পারে। প্রথমটা হল- ভিডিও ক্যামেরা দিয়ে

ভিডিও তৈরি করা। আপনার যদি কোন ক্যামেরা না থাকে তাহলে আপনি আপনার কম্পিউটার ব্যবহার

করতে পারেন। তবে একটা কথা মনে রাখবেন, অবশ্যই ভাল সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে এবং

আপনার কম্পিউটার দ্রুত থাকতে হবে। শুধু একটা বিষয়কে মাথায় রাখবেন,

তাহল- আপনাকে অবশ্যই মজাদার ভিডিও তৈরী করতে হবে। মজাদার বলতে আমি কমেডি ফিল্ম তৈরী

করার কথা বলছিনা। আমি বলছি, আপনার ভিডিও ভিউয়ারদের জন্য আনন্দদায়ক এবং তারা যেই

ধরণের ভিডিওর জন্য সার্চ করছেন সেই ধরণের ভিডিও।

৩. আপনার ভিডিও YouTube এ আপলোড:

আপনি যখন আপনার তৈরীকৃত ভিডিও আপলোড দিবেন, তখন অবশ্যই আপনার কী-ওয়ার্ডগুলো দিয়ে

দিবেন এবং সাথে সাথে আপনার ভিডিও এর ডেসক্রিপশনটাও দিয়ে দিবেন। আপনার ভিডিও এর সাথে

আপনার ওয়েবসাইটের URL টাও দিয়ে দিবেন।

৪. আপনার আপলোডকৃত ভিডিও বিভিন্ন সোসিয়াল নেটওয়ার্কিং সাইটে শেয়ার করুন:

বিশ্বের সবচাইতে View হয় এমন প্রথমতিনটি সাইটের একটি হল Youtube .Youtube-এর নাম

শোনেননি এমন কাউকে হয়ত খুজে পাওয়া দুষ্কর। 2005 সালে 23April ইউটিউব যাত্রা শুরু করে।

কয়েকবিলিয়ন ভিডিও’র মালিক এখন Youtube .কিন্তু আপনি কি জানেন Youtube থেকে আয় করা

যায়।

হ্যাঁ আপনি ইউটিউব থেকে আপনি আয় করতে পারবেন আপনার অ্যান্ডসেন্স একাউন্ট থেকে। যেহেতু

আপনি YouTube Account এর মাধ্যমে  আপনার Adsense Account টি পেয়েছেন। তাই এটি

আপনার  Hosted Account. তাই আপনাকে আর কিছু করা লাগবেনা। আপনি  এখন ইউটিউবে

ভিডিও টিউটোরিয়াল আপলোড করতে থাকুন। আপনার ইউটিউব ভিডিওতে  অটোম্যাটিক্যালি এড শো

করবে। তবে টিউটোরিয়াল আপলোড দেওয়ার সময় এসইও এবং কিওয়ার্ড রিসার্চ এর বিষয় গুলির

প্রতি নজর দিবেন। কারন বিষগুলি ভিজিটর আনার  ক্ষেত্রে ধনন্তরী কাজ করবে।

Bulletproof your Domain for $4.88 a year!

আমি কী  আমার  Hosted Adsense Account এর Add সমুহ   Blogger Site- বসাতে পারব?

হ্যাঁ পারবেন। তবে আপনা ব্লগের বয়স ন্যুনতম ৬ মাস হতে হবে। ৬ মাস পর আপনার ব্লগার

ড্যাসবোর্ডের সেকশনে এডসেন্সের জন্য আবেদনের জন্য একটি অপশন দেখতে পাবেন। সেখানে

Existing Adsense Account  অপশনে আপনার Adsense Account  এর Publisher ID

 বসিয়ে দিয়ে Save/ok করে বেরিয়ে আসুন। এখন আপনার অ্যাডসমুহ প্লেস করুন। দেখবেন সব

ঠিকঠাক থাকলে আপনার এড শো করবে।

ইউ টিউব থেকে আয় করা ডলার কিভাবে উঠাবেন ?

 এবার মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে, ইনকামের টাকা গুলা কোথায় আসবে আর পাবেন বা কিভাবে?

আপনাকে এর জন্য কিছু কাজ করতে হবে।

আপনার চ্যানেল খোলার পর আপনাকে গুগলের অ্যডসেন্সে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। সেখানে

আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজ করে দিলেই অ্যাডসেন্স আপনার ভিডিও এর উপর অ্যাড শো

করাবে। আর টাকা গুলো অ্যাড হবে অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্টেই। মূলত এখানে ডলার হিসাবে অ্যাড হয়।

আপনি অ্যাডসেন্সে আপনার একটি অনলাইন ব্যাংক ম্যাথডের মাধ্যমে টাকা গুলো উইড্রো করতে

পারবেন। টাকা গুলো সরাসরিই আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টেই আসবে।

আসা করি ক্লিয়ারলি সব ভাল করে বোঝাতে পেরেছি।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

ইউটিউব কি? কেন টাকা দেয়?

ইউটিউব হল গুগলের একটি সাইট। ভিডিও শেয়ারিং সাইট। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও

শেয়ারিং সাইট। বর্তমানে এটি অ্যালেক্সা রিয়াংকিং অনুযায়ী গুগলের পরেই এর স্থান। অর্থাৎ ২ নম্বর

সাইট। ইউটিউব টাকা দেয় কারণ তারা আপনার ভিডিও-এর মাধ্যমে টাকা পায়। অর্থাৎ আপনার

ভিডিও-তে তারা অ্যাড প্রকাশ করে। আর অ্যাড পাবলিশারেরা গুগলকে অর্থাৎ ইউটিউবকে টাকা দেয়।

আবার সেই টাকার ৪৫-৫৫% তারা রেখে বাকি অংশ আপনাকে দেয়। সব মিলিয়ে লাভ হয় গুগলের।

একটু হিসাব করে দেখবেন।

আপনি কিভাবে টাকা পাবেন?

Shared Hosting with Namecheap. Free .Website domain & WhoisGuard

ধরা যাক, আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুললেন। ভিডিও আপলোড করা শুরু করলেন। ধীরে ধীরে

ভিউয়ার বাড়তে লাগল। সাবস্ক্রাইবার বাড়তে লাগল। যদিও আয় করার জন্য সাবস্ক্রাইবার লাগে না।

লাগে ভিউয়ারস। এখন প্রশ্ন কত ভিউয়ারস?আসলে মোটামুটি এক হাজার ভিউয়ারস হলে ইউটিউব

আপনাকে টাকা দিয়ে থাকে। টাকা পাওয়ার জন্য আপনার দরকার একটি গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট।

যেখানে আপনি আপনার Master Card অথবা Credit Card এর তথ্য দিবেন। আর সেখানেই

আপনার টাকা দেওয়া হবে। তবে টাকা পাবেন অ্যাড পাওয়ার পরের মাসের শেষের দিকে। অর্থাৎ যদি

আপনি জানুয়ারী মাস থেকে অ্যাডের সুবিধা পেয়ে থাকেন তবে এর টাকা পাবেন ফেব্রুয়ারী মাসের ২৫

তারিখের পরে। খুবই সহজ হিসাব। তবে এর জন্য আপনাকে ১৮+ হতে হবে। তাই দুঃখের হলেও সত্যি যে

আমার এখনও ১৮ হয়নি তাই আমি অ্যাডসেন্স ব্যবহার করতে পারি নি।

তবে এক হাজার ভিউয়ারস হলে কত টাকা দিবে আপনাকে?

এক্ষেত্রে ব্যাপারটা একটু জটিল। টাকা দেওয়ার ব্যাপারটা জানতে হলে আপনার জানতে হবে যে আপনার

ভিউয়ারস কোন দেশ থেকে বেশি দেখছে। যেই দেশ যত উন্নত সেই দেশের থেকে ভিউ হলে আপনি

টাকা বেশি পাবেন। যেমনঃ

ধরুন, আপনি ভিডিও তৈরি করেছেন বাংলায়। স্বভাবতই আপনার অধিকাংশ ভিউয়ারস হবে বাংলাদেশ

ও ভারত থেকে। এক্ষেত্রে আপনি একটু কম টাকা পাবেন। কারণ আমরা উন্নতশীল দেশ। আবার ধরুন,

আপনার ভিউয়ারসের অধিকাংশই আমেরিকার তবে আপনি বাংলাদেশের ভিউয়ারস থেকে যে টাকা

পাবেন তার থেকেও ৪-৫গুণ বেশি টাকা পাবেন। কারণ অ্যাড পাবলিশাররা জানে যেআমেরিকায় তাদের

মার্কেটপ্লেস অনেক বেশি। তাই তারা সে দেশ থেকে বেশি ভিউ হলে টাকা বেশি পেইড করে।

সুতরাং আপনার লক্ষ রাখতে হবে যে, আপনার ভিউয়ারস কোন দেশের।

আসা করি ক্লিয়ারলি সব ভাল করে বোঝাতে পেরেছি।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

simonpan

শিমন পান হলেন , এই ওয়েব সাইটের একজন প্রফেশনাল এফিলিয়েট মার্কেটার। এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক খুঁটিনাটি বিষয়বস্তূ নিয়ে আলোচনা করা এবং মাতৃভাষা বাংলাতেই কিভাবে একজন ব্যাক্তি জিরো থেকে শুরু করে সফলতার শীর্ষে অবস্থান করতে পারেন তা নিয়ে আলোচনা করাই এই ওয়েবসাইট এর মূল উদ্দেশ্য । তিনি অনলাইনে কাজ শুরু করেন ২০১৮ সালের জানুয়ারী মাসে । তার প্রথন সাইটটির নাম হল www.makemoneywithdada.com এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক বিভিন্ন আপডেট পেতে নিয়মিত এ ওয়েবসাইট টি ভিসিট করুন। যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন :- simonpanbd@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *