ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে খুলবেন তার র্সম্পকে আলোচনা ?

ইউ টিউব চ্যানেল খুলতে কি কি লাগবে?

ইউটিউব হল বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট। আমাদের মধ্যে অনেকের ইউটিউব

চ্যানেল আছে বা কেউ কেউ খুলতে চাচ্ছেন। তাদের জন্য বলে রাখি আগের থেকে এখন প্রতিযোগিতা

অনেক বেশি। তাই ভাল একটি ইউটিউব চ্যানেল আর সাথে ভাল কনটেন্ট থাকা সত্তেও ইউটিউবএ

অনেকেই ভাল কিছু করতে পারে না। এর প্রধান কারন কিছু বেসিক জিনিস ঠিক না রাখা।

ইউটিউব চ্যানেল খোলার জন্য প্রথম অবষ্থায় যা লাগে তা হলো :

1. কম্পিউটার / স্মার্টফোন বা অন্য কিছু, যার দ্বারা আপনি Youtube-এ ঢুকবেন ।

2. ইন্টারনেট কানেকশন

3. Youtube account

4. ক্যামেরা (যদি ভিডিও শুট করতে চান)

5. মাইক্রোফোন

6. Google Adsense Account (১৮ কিংবা তার বেশি বয়স হতে হবে)

7. Regular Video Upload

এই তো গেল জিনিস এর কথা। তবে আর একটা জিনিস আছে যেটা আপনার অবশ্যই থাকা দরকার সেটা

Bulletproof your Domain for $4.88 a year!

সবসময়ই আমরা করি যখন কোন ওয়েবসাইট খুলি। সেটি হলো আপনি কি নিয়ে কাজ করবেন

অর্থাৎ কোন টপিক বা বিষয় নিয়ে কাজ করবেন সেটি ঠিক করা। আমরা অনেকেই বিষয় ঠিক না করেই

ইউটিউব চ্যানেল খুলে ফেলি আর মনে যা আসে তাই ভিডিও বানিয়ে আপলোড দিয়ে দেই। এতে কি হয় যানেন?

আপনার ভিডিও পছন্দ করে অর্থাৎ আপনার ভিডিও দেখার মত কেউ থাকে না। যেহেতু আপনার কোন

নির্দিষ্ট বিষয় নেই তাই আপনার সাবসক্রাইবার হবে অনেক আলাদা আলাদা ধরনের তাই তারা কখনই

আপনার ভিডিও গুলো দেখবে না।তাই আমি আপনাদের বলবো অবশ্যই একটি নির্দিষ্ট বিষয় ঠিক করে

তারপরে ইউটিউব এ চ্যানেল খুলবেন। বিষয় খুজতে যতক্ষণই লাগুক না কেন আগে সেটা ঠিক করে

নেবেন।আর অবশ্যই বিষয় ঠিক করার সময় আপনি কোন জিনিসটা ভাল পারেন সেটা আগে দেখবেন।

 যদি আপনি গান গাইতে পারেন তাহলে গান গেয়ে সেটা আপলোড দিতে পারেন।

যদি আপনি মানুষকে হাসাতে পারেন তাহলে ট্রল ভিডিও বানাতে পারেন। আর

যদি অন্য কিছু পারেন তাহলে সেটাই করে ইউটিউব এ আপলোড দিবেন।

এরকম আর কিছু জিনিস আছে যেগুলো ইউটিউব চ্যানেল খুলার পূর্বে অবশ্যই জানা দরকার। এই

বিষয়গুলো সর্ম্পরকে আরও বিস্তারিত ভাবে জানতে নিচের লেখা গুলো ধাপে ধাপে পড়ুন । ভাল লাগবে ।

ইউ টিউব কিভাবে খুলবেন ?

আশা করি বন্ধুরা আপনারা সবাই ভাল আছেন। এখন আমি আলোচনা করবো আপনি কিভাবেইউটিউব

চ্যানেল  খুলবেন তার  নিয়ম কানুন !

একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলার জন্য আপনার প্রথমে একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকা লাগবে। আর

জিমেইল অ্যাকাউন্ট দিয়েই ইউটিউবে চ্যানেল ক্রিয়েট করতে হবে।

আপনার যদি জিমেইল না থাকে, তাহলে আপনি gmail.com এ যেয়ে Create account এ ক্লিক

করবেন সেখানে আপনার ফাস্ট নেম, লাস্ট নেম, পাসওয়ার্ড, মোবাইল নাম্বার দিয়ে সাবমিট করলেই

আপনার একটা জিমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে।

যদি খুলতে না পারেন । কিভাবে gmail account খুলবেন , তার সর্ম্পকে আমি আগেই আলোচনা

করেছি । আপনারা জানতে চাইলে জেনে নিতে পারেন ।

Gmail Account কিভাবে খুলবেন এবং এর সুবিধা কি বিস্তারিত আলোচনা ।

 তারপর আপনার কাজ হল ইউটিউব চ্যানেল খোলা।

জিমেইল অ্যাকাউন্ট খোলার পর আপনি youtube.com এ যাবেন। তারপর সেখান থেকে SIGN

IN এ ক্লিক করবেন। তারপর একটা বক্স আসবে। সেখানে আপনার জিমেইলটা দিবেন। তারপর নিচে

Next এ ক্লিক করবেন। এরপর একটি বক্স আসবে। সেখানে আপনি আপনার জিমেইল খোলার সময় যে

পাসওয়ার্ডটি দিয়েছিলেন সেই পাসওয়ার্ডটি এখানে দিয়ে Next এ ক্লিক করলেই আপনার একটি চ্যানেল

ক্রিয়েট হয়ে যাবে।

সাইন ইন করার পর নীচের ছবিটির মতো যদি স্ক্রীন আপনার সামনে আসে তাহলে লাল দাগ দেয়া

অংশটিতে (My Channel) ক্লিক করুন। আর না হলে সরাসরি পরের ধাপে চলে যান। এবার আপনার

সামনে যে স্ক্রীনটি আসবে তার ডান দিকের কোণায় Profile Picture অপশনে একটি ক্লিক করুন।

তারপর YouTube Settings অপশনে ক্লিক করুন । এবার নতুন এই স্ক্রীনটির একেবারে নীচে দেখুন

Create a new Channel নামের যে অপশনটি আছে তাতে একটি ক্লিক করুন। how-to-open-

youtube-channel-answerglobe বক্সে আপনার চ্যানেলের নাম দিন। Category তে বাছাই

করুন কোন ধরণের চ্যানেল আপনি খুলতে চান। এবার “I agree to Page Term” লেখায় টিক দিয়ে

Done প্রেস করুন। personal-youtube-video-channel-answerglobe আপনার চ্যানেল

তৈরি হয়ে গেছে। এবার আপনাকে Suitable Thumbnail image, Cover ইত্যাদি আর ছোট খাট

যা যা দরকার সেগুলো সব ইন্সট্রাকশন অনুযায়ী করে নিতে হবে। আশা করি নিজের থেকে এই

কাজগুলো করতে পারবেন। না পারলে আমাদের ফেসবুক ফ্যান পেইজে অথবা পোষ্টের নীচে কমেন্ট করে

বিষয়টি জানান। সব শেষ হয়ে গেলে এবার আপনার ভিডিও Upload করা শুরু করে দিন।

ইউ টিউব কিভাবে ভিডিও আপলোড করবেন ?

Video Upload করতে হলে প্রথমে Video ট্যাবটি প্রেস করুন। তারপর Upload a Video

লেখাটাতে ক্লিক করুন। ব্যস তারপর পছন্দ মতো ভিডিও সিলেক্ট করে আপলোড করে দিন আপনার

সদ্য নির্মিত YouTube চ্যানেলে। ব্যাক্তিগত YouTube Channel খোলার এই প্রক্রিয়াটি খুবই সহজ।

কিন্তু উপায় না জানার কারণে অনেকেই এটা খুলতে পারেন না। YouTube Channel থেকে উপার্জন

করতে চাইলে বা আপনার চ্যানেলের ভিজিটর বাড়াতে চাইলে এক্সক্লুসিভ সব ভিডিও সংরক্ষণ করুন

আর Facebook, Twitter, Google+ প্রভৃতি সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে আপনার বন্ধু-বান্ধব আর

পরিচিত মানুষদের মাঝে আপনার চ্যানেলের ভিডিওগুলো শেয়ার করা শুরু করুন। তাদেরও অনুরোধ

করুন যাতে তারা এইসব ভিডিও অন্যদের সাথে শেয়ার করে। এভাবে নিত্য নতুন ভিডিও আপলোড

করে আর শেয়ার করতে থাকলে আপনার চ্যানেলের ভিজিটর লাখের ঘরও পেরিয়ে যাবে

 মনে হয় ক্লিয়ার ভাবে বোঝাতে পেরেছি। যদি কোন সমস্যা থাকে বুঝতে, তাহলে আমাকে কমেন্ট করে

জানাবেন। আমি অবশ্যই আপনার সমস্যার সল্যুশন করে দেবো।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

simonpan

শিমন পান হলেন , এই ওয়েব সাইটের একজন প্রফেশনাল এফিলিয়েট মার্কেটার। এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক খুঁটিনাটি বিষয়বস্তূ নিয়ে আলোচনা করা এবং মাতৃভাষা বাংলাতেই কিভাবে একজন ব্যাক্তি জিরো থেকে শুরু করে সফলতার শীর্ষে অবস্থান করতে পারেন তা নিয়ে আলোচনা করাই এই ওয়েবসাইট এর মূল উদ্দেশ্য । তিনি অনলাইনে কাজ শুরু করেন ২০১৮ সালের জানুয়ারী মাসে । তার প্রথন সাইটটির নাম হল www.makemoneywithdada.com এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক বিভিন্ন আপডেট পেতে নিয়মিত এ ওয়েবসাইট টি ভিসিট করুন। যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন :- simonpanbd@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *