ইউটিউব কি ?

ভূমিকা:

হ্যালো বন্ধুরা, ইউটিউব থেকে আয় করা যায় ।এটা আমরা কম বেশি সকলে জানি, কিন্তু কিভাবে আয়

করা যায়  তার ব্যাপারে আমরা অনেকে জানি না ।আজ আমি সে সর্ম্পকে আপনাদের সাথে আলোচনা

করবো ইউটিউব থেকে অনেক অর্থ আপনি আয় করতে পারেন। আজ আমি আপনাদের সমস্ত কিছু

ক্লিয়ার করে বিস্তারিত ভাবে বোঝাবো।শুরুতে আমি একটি উদাহরণ দেইে, আশা করি বুঝতে পারবেন ।

আমরা সবাই কিন্তু টেলিভিশন দেখি। কিন্তু জানেন কি যে, টেলিভিশন কর্তৃপক্ষের আয় হয় কিভাবে?

তারা তো শুধু আমাদের অনুষ্ঠানই দেখিয়ে যায়। তাহলে ইনকাম করে কিভাবে?

আসল কথা হলো: টেলিভিশনে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাঝে মাঝে বিভিন্ন কোম্পানির অনেক প্রোডাক্টের

বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ ঐ সকল কম্পানির কাছ থেকে টাকা নিয়ে থাকে তাদের

বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য। টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ যত বেশি বিজ্ঞাপন প্রচার করবে ততই ইনকাম আসবে

তাদের।ইউটিউবের নাম আমরা সকলেই শুনেছি। এই যুগে ইউটিউব দেখে না এমন লোক খুব কমই

আছে। আজ এই বিষয়ে কথা বলব। আশা করি ভাল লাগবে।আমার অন্যান্য পোস্টে সবাই ইউটিউব

নিয়ে মোটামুটি ধারনা হয়তো পেয়েছেন সবাই। তবে আজ আমি ইউটিউবে চ্যানেল  সর্ম্পকে বিস্তারিত

আলোচনা করবো ।

তাহলে শুরু করা যাক : আগেও বলেছি যে, ইউটিউব হল ভিডিও দিয়ে অর্থ আয়ের একটি মাধ্যম।

ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে আপনি অনেক আয় করতে পারবেন। সারাদেশের মানুষ এখন

ইউটিউব দেখে। জনপ্রিয় একটা ইন্টারটেইনমেন্টের জায়গা এটি। প্রায় সব ধরনের ভিডিওই এখানে

পাবেন আপনি। যেমন গান, কৌতুক, সিনেমা, প্রাঙ্ক ভিডিও, টিউটোরিয়াল ভিডিও, স্পোর্টস, এডুকেশন,

গেমিং ইত্যাদি।আপনি চাইলে এর মধ্যে যে কোন বিষয় নিয়ে ইউটিউবিং করতে পারেন। তবে এই

বিষয়ের বাইরেও আপনার পছন্দ অনুযায়ী কাজ করতে পারবেন আপনি। তবে কোন ধরনের এডাল্ট

ভিডিও বা পর্ণোগ্রাফী নিয়ে কাজ করা যাবে না। এটা ইউটিউবে নিষিদ্ধ। আপনি যদি এই সবস্ত বাজে

কনটেন্ট নিয়ে কাজ করেন তাহলে আপনাকে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ বিনা নোটিশেই আউট করে দেবে। মানে

আপনার চ্যানেল নষ্ট করে দেবে। কারণ ইউটিউব বাজে কোন কনটেন্ট গ্রহন করে না। অন্যান্য ভুলের

জন্য কয়েকবার ওয়ার্নিং দিলেও এই এডাল্ট ভিডিও এর জন্য কোন ওয়ার্নিং দেয় না ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

সরাসরি আপনার চ্যানেল নষ্ট করে দেবে। আরেকটা কথা মাথায় রাখতে হবে। সেটা হল, আপনি

আপনার চ্যানেলে একান্তই আপনার নিজের কনটেন্ট ইউজ করবেন। অন্য কারোর ভিডিও যদি আপনি

আপনার চ্যানেলে আপলোড করেন তাহলে আপনার চ্যানেল কপিরাইট রুলের আওতায় এনে নষ্ট করে

দেবে। তবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ আপনাকে এর জন্য ২ বার সময় দেবে। মানে আপনি যদি অন্য কারোর

কনটেন্ট বা ভিডিও আপনার নিজের চ্যানেলে ইউজ করেন তাহলে আপনাকে ২ বার ওয়ার্নিং দেবে এই

রকম ভুল না করার জন্য। কিন্তু ৩য় বার যদি আবার একই ভুল করেন তাহলে আপনার সাধের চ্যানেল

ইউটিউব থেকে আউট বা নষ্ট করে দেবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।তবে আপনি আপনার ভিডিও এর সার্থে

কিছু কিছু অন্যের ভিডিও ইউজ করতে পারেন, তবে ঐ ভিডিও এর সম্পূর্ণ টুকু নয়। কয়েক সেকেন্ট মাত্র

ইউজ করতে পারবেন। আর অডিও এর বেলায়ও একই নিয়ম। অন্যের অডিও ইউজ করা যাবে না।

কিন্তু আপনি ইউটিউবে কপিরাইট ফ্রি অডিও পাবেন। সেগুলো ডাউনলোড করে আপনি ফ্রিতেই আপনার

ভিডিওতে ইউজ করতে পারবেন। এতে কোন প্রব্লেম হবে না। আপনি একটা চ্যানেল খোলার আগে

ইউটিউবের সমস্ত কন্ডিশন গুলো ইউটিউব থেকে জেনে নিবেন। তাহলে সবচেয়ে ভাল হবে।

ইউ টিউব

ভিডিও শেয়ার করার একটি সামাজিক মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউব। ইউটিউব কি এই প্রশ্নের এক কথায়

উত্তরটি আমরা সবাই জানি। ২০০৫ সালে যখন ইউটিউব যাত্রা শুরু করেছিল তখন এর সংজ্ঞা দিতে ঐ

একটা বাক্যই হয়ত যথেষ্ট ছিল। এখন ইউটিউবে শুধু শেয়ার করা না, ভিডিও ক্লিপ, সিনেমা, গান,

ডকুমেন্টরি এবং আরো নানা ধরণের ভিডিওর বিশালএকটি আর্কাইভে পরিণত হয়েছে। গুগোলের অংশ

হওয়ার পর থেকে হোস্টেড এডসেন্সের মাধ্যমে এড দেখিয়ে এখান থেকে অর্থ উপার্জনও করা যাচ্ছে।

ইউটিউব মূলত ভিডিও দেখার একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। আর ভিডিও তৈরি করে আয় করারমাধ্যমকে

ইউটিউবিং বলে। ইদানিং আমাদের তরুন সমাজ এই দিকে বেশি ধাবিত হচ্ছে।কারণ ইউটিউব এমন

একটা মাধ্যম যেখানে আপনার ভিডিও সারা দুনিয়ার মানুষ দেখতে পারবে। আর রাতারাতি অর্থ আয়ের

পাশাপাশি সেলিব্রেটি হয়ে যাবে খুবই শীঘ্রই। ইউটিউবে প্রায় সব ধরনের ভিডিও পাওয়া যায়। শুধু মাত্র

পর্ণোগ্রাফী বাদে। এখানে কমেডি ভিডিও, টিউটোরিয়াল ভিডিও, প্রাঙ্ক ভিডিও, মডেলিং, সিনেমা, গেমিং,

স্পোর্টস, বিভিন্ন পণ্যের রিভিউ, নিউজ সহ প্রভৃতি ভিডিও আছে।

ইউ টিউব এর ইতিহাস?

2005 সালে 23April ইউটিউব যাত্রা শুরু করে।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে জানান আর ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

simonpan

শিমন পান হলেন , এই ওয়েব সাইটের একজন প্রফেশনাল এফিলিয়েট মার্কেটার। এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক খুঁটিনাটি বিষয়বস্তূ নিয়ে আলোচনা করা এবং মাতৃভাষা বাংলাতেই কিভাবে একজন ব্যাক্তি জিরো থেকে শুরু করে সফলতার শীর্ষে অবস্থান করতে পারেন তা নিয়ে আলোচনা করাই এই ওয়েবসাইট এর মূল উদ্দেশ্য । তিনি অনলাইনে কাজ শুরু করেন ২০১৮ সালের জানুয়ারী মাসে । তার প্রথন সাইটটির নাম হল www.makemoneywithdada.com এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ক বিভিন্ন আপডেট পেতে নিয়মিত এ ওয়েবসাইট টি ভিসিট করুন। যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন :- simonpanbd@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *