অনলাইন জব:বাংলাদেশি নারীদের অনলাইনে কাজের জন্য কিছু গুরুত্বর্পূণ টিপস।

Freelancing কাজ কিভাবে শুরু করা যায়:

শুরুতে আপনি সহজ কাজ দিয়েই আরাম্ভ করতে পারেন অর্থাৎ আপনি যা জানেন তা দিয়েই

Freelancing-এর কাজটি শুরু করতে পারেন। অনেক ধরনের কাজ আছে যেমন-লেখা লিখি,

Programming, Marketing, Web designing, image editing, ডেভেলপমেন্টসহ

আরো অনেক কিছু। আপনাকে খুঁজে নিতে হবে আপনি কি করতে চান। অর্থাৎ নিজের আগ্রহ খুঁজে বের

করুন। যে কাজটি আপনি পারেন বা যে কাজে আগ্রহ আছে সেটা শিখে নিতে পারেন। মনে রাখতে হবে

পুরুষ হোক বা নারী-কেউই একদিনে সফল হয়ে যায় না। ধৈর্য্য, একাগ্রতা থাকলে আপনি একদিন ঠিকই

সাফল্য অর্জন করবেন।

Freelancing করার জন্য কিছু টিপস নারীদের জন্য:-

আপনি যদি অনলাইন জগতে নতুন হয়ে থাকেন, তবে আমি অনুরোধ করবো কিছু সময় দিন এই বিষয়

ভালোভাবে জানার জন্য। গুগল থেকে জেনে নিন, ঘাটাঘাটি করুন। তাহলে আমি মনে করি আপনার

কাজ করার জন্য ভালো হবে । তখন কোন ঝামেলা হবে না।

১.যারা অনেক দিন থেকে কাজ করছে তাদের প্রোফাইল দেখুন। কি কি বিষয়কে হাইলাইট করছে এবং

কিভাবে তা উপস্থাপন করেছে-তাদের মতো করে নিজের প্রোফাইলকে সাজান তাহলে ভালো হবে।

২.ইংরেজিতে একটু হলেও দক্ষতা থাকতে হবে। অন্তত Clients কোন কাজ করতে বলছে, কেমন কাজ

চান, সেই কাজে আপনার দক্ষতা ইত্যাদি বিষয়ে বলার মতো ইংরেজিতে জ্ঞান রাখবেন।

পড়ুন:- কিভাবে আয় করবেন YouTube থেকে ।

৩.কাজ পাওয়ার জন্য বিড করতে থাকুন। যে কাজটি পারবেন বলে মনে হয় তাতে বিড করুন।

৪.আপনি সব কাজ জানবেন এমন কোনো কথা নেই। কোন কাজ না জানলে হাল ছেড়ে দিবেন না, শিখে

নিন।

৫.কোনো কাজের জন্য আবেদন করার সময় তা সুন্দর এবং তথ্যপূর্ণ ভাবে করার চেষ্টা করবেন।

৬.কাজ পাওয়ার পর মক্কেলদের বিভিন্ন প্রশ্নের সুন্দর করে উত্তর করবেন, বুঝিয়ে দিবেন। এটা ইতিবাচক

প্রভাব ফেলে আপনার কাজে।

৭. যে কোন কাজ করার সময় র্ধৈয্য ধরে করুন। তাহলে কাজটি ভালো হবে। তাড়াতাড়ি কোন কাজ

করবেন না।

পড়ুন:- “ইউটিউব নাকি ফেসবুক” কোনটা থেকে আয় করবেন

আপনাকে Freelancing কাজ শুরু করার আগে কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়ে রাখতে হয়। যেমন-

আগেই ভেবে নিন আপনি ফ্রিল্যান্সিং কাজটি ফুল টাইম করবেন নাকি পার্ট টাইম। আমার মতে প্রথমেই

ফুল টাইমের জন্য কাজ করা উচিত নয়। কোনো জব থাকলে বা পড়াশোনার পাশাপাশি কাজটি চালিয়ে

যেতে পারেন। যদি নিজের উন্নতিতে সন্তুষ্ট হন তাহলে ভবিষ্যতের জন্য সিদ্ধান্ত নিন। যেসব কাজে

ভালো পেমেন্ট আছে আর পাশাপাশি আপনি আগ্রহবোধ করেন এমন কাজ খুঁজে বের করুন।

সব কৌশল অবলম্বন করার পরও দুইটি জিনিস থাকা খুবই দরকার।

পড়ুন:-পিটিসি সাইটে রেফারেল বৃদ্ধি করে নিন ৭টি উপায়ে

১। একটি কম্পিউটার।

২। ইন্টারনেট সংযোগ।

এই দুটি জিনিস বাসায় থাকা একজন ফ্রিল্যান্সারের জন্য খুবই জরুরি। অনলাইনে কাজ করতে চাইলে

যেমন ভালো মানের ইন্টারনেট সংযোগ থাকা আবশ্যক তেমনি ভালো কনফিগারেশনের কম্পিউটার

থাকাও প্রয়োজন। এগুলো আপনার কাজের গতি ঠিক রাখতে ও সময় বাঁচাতে সাহায্য করবে।

লেখা গুলো পড়ে ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদেরকে শেয়ার করতে ভুলবেন না । আপনার

সুচিন্তিত মতামত আমার একান্ত কাম্য। তাই এই বিষয়ে আপনার যদি কোন মতামত থেকে থাকে তাহলে

অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। আমি আনন্দের সহিত আপনার মতামত গুলো পর্যালোচনা করে

রেপ্লাই দেওয়ার চেষ্টা করবো।

ভাল থাকবেন।

পড়ুন: অনলাইন জব: বাংলাদেশিনারীদের আয়ের উৎস হতে পারে ।

Leave a Comment